নভেম্বর ২১, ২০২০
৯:৩৫ পূর্বাহ্ণ

এক উল্কায় ভাগ্য বদল

খবর ডেক্সঃ- একেই বলে আঙ্গুল ফুলে কলাগাছ। হ্যাঁ, ইন্দোনেশিয়ায় এমনটাই একটি ঘটনা ঘটেছে। ৩৩ বছর বয়সী জসুয়া হুতাগালানগু নামের এক যুবক রাতারাতি ১১ কোটি টাকার মালিক বনে গেছেন। এক উল্কাপিণ্ড বদলে দিয়েছে তার ভাগ্য।
উল্কাপিণ্ডটি পড়েছিল তার টিনের চালের ছাদে। এরপর ছাদ ফুঁড়ে ঘরের বারান্দার মেঝেতে। ঘরের মেঝে ফুঁড়েও সেটি ১৫ সেন্টিমিটার নিচে চলে যায়। এমন ঘটনায় যারপরনাই বিস্মিত হয়েছিলেন ওই যুবক। যখন উল্কাপিণ্ডটি তার মেঝেতে পরে তখন এটি বেশ উত্তপ্ত ছিল। পরে মেঝে থেকে এটি তোলেন তিনি।
আশ্চর্যজনক বিষয় হলো ২ কেজি ১০০ গ্রাম ওজনের উল্কাপিণ্ডটি ৪ বিলিয়ন বছরের পুরনো। যা একেবারেই বিরল প্রজাতির। যে কারণে এটির মূল্য ডায়মন্ডের চেয়েও বেশি হয়ে যায়। উল্কাপিণ্ডটির প্রতি গ্রামের মূল্য ধরা হয়েছিল ৮৫৭ ডলার। এই দামে মোট ১১ কোটি টাকায় উল্কাপিণ্ডটি বিক্রি করেন তিনি।
প্রবাদ বাক্য যে মিথ্যা কিছু নয় তা প্রমাণ করলেন ইন্দোনেশিয়ার জসুয়া হুটাগালুং। ৩৩ বছরের এই যুবকের বাড়ির ছাঁদ ফুঁড়েই পড়েছে উল্কাপিণ্ড। আর এটি বিক্রি করেই এক রাতে তিনি বনে গেছেন কোটিপতি। ইন্দোনেশিয়ার সুমাত্রা দ্বীপের কোলাঙ্ক এলাকায় তার বাড়ি। কফিন তৈরি করেই কোনোরকমে জীবিকা নির্বাহ করতেন তিনি। তবে গত আগস্টের ওই ঘটনা তার জীবন বদলে দিয়েছে। যদিও বিষয়টি সম্প্রতি তুলে নিয়ে এসেছে বৃটিশ গণমাধ্যম দি ইন্ডিপেনডেন্ট।

শেয়ার করুন

Related Articles

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *