নওগাঁ জেলা প্রতিনিধি
জুন ১৩, ২০২২
২:১৩ পূর্বাহ্ণ
নওগাঁর রাণীনগরে নৈশপ্রহরীকে বেঁধে রেখে ২২ টি দোকানে দুর্ধর্ষ চুরি

নওগাঁর রাণীনগরে নৈশপ্রহরীকে বেঁধে রেখে ২২ টি দোকানে দুর্ধর্ষ চুরি

নওগাঁর রাণীনগরে দুই নৈশপ্রহরীকে বেঁধে রেখে একই বাজারের ২২ টি দোকানে দুর্ধর্ষ চুরি সংঘটিত হয়েছে। এ সময় চোরেরা ওই বাজারের ২২ টি দোকানে থেকে নগদ টাকাসহ প্রায় ৮ লক্ষাধিক টাকার মালামাল লুট করে নিয়ে গেছে বলে জানিয়েছেন ব্যবসায়ীরা।

শনিবার দিনগত রাতে উপজেলার বড়গাছা (চৌমুহনী) বাজারে এ চুরির ঘটনা ঘটে। এ ঘটনার পর থেকে ওই এলাকার মানুষের মাঝে চুরি আতঙ্ক বিরাজ করছে।

স্থানীয় ব্যবসায়ীরা জানায়, উপজেলার বড়গাছা (চৌমুহনী) বাজারে কীটনাশক, মুদি, ফেক্সিলোড, স্বর্ণঅলংকার, গবাদিপশুর খাদ্যসহ বিভিন্ন ধরনের প্রায় ৫০ টি দোকানে রয়েছে। ওই বাজারে রাতে পাহারা দেওয়ার জন্য বাজার কমিটির পক্ষ থেকে দুইজন নৈশপ্রহরী প্রতিদিন রাতে বাজারের দোকানগুলো পাহারা দিয়ে থাকেন। প্রতিদিনের ন্যায় শনিবার রাতে বাজারের ব্যবসায়ীরা দোকান বন্ধ করে বাড়িতে চলে যায়। রবিবার সকালে অনেক ব্যবসায়ীরা দোকানে এসে দেখেন বাজারের ২০ থেকে ২২ টি দোকানের তালা কেটে চোরেরা দোকান থাকা নগদ টাকাসহ মালামাল চুরি করে নিয়ে গেছে।

বড়গাছা বাজার বণিক সমিতির সাধারণ সম্পাদক উজ্জল বলেন, এদিন রাতে দুইজন নৈশপ্রহরী বাজারের দোকানগুলো পাহারা দিচ্ছিলো। গভীর রাতে চোরেরা এসে দুইজন নৈশপ্রহরীকে বেঁধে রেখে বাজারের প্রায় ২০-২২ টি দোকানের নগদ টাকাসহ ৮ লক্ষাধিক টাকার মালামাল চুরি করে নিয়ে গেছে। ঘটনাটি থানা পুলিশকে জানানো হয়েছে।

বড়গাছা বাজারের সার ও কীটনাশক ব্যবসায়ী সজল সরকার জানান, ওই রাতে আমার দোকান থেকে সিনজেনটা কোম্পানিসহ বিভিন্ন কোম্পানির প্রায় ৩ লাখ টাকার মালামাল চুরি হয়েছে।

বড়গাছা বাজারের কাপড় ব্যবসায়ী বকুল বলেন, আমার দোকান থেকে প্রায় ৩০ হাজার টাকার বিভিন্ন কাপড় চুরি করে নিয়ে গেছে চোরেরা।

বড়গাছা বাজারের ইলেকট্রনিক্স ব্যবসায়ী মো: রনি জানান, আমার দোকানের তালা কেটে চোরেরা ২৫ হাজার টাকার বিভিন্ন ইলেকট্রনিক্সের মালামাল নিয়ে গেছে।

এ ব্যাপারে রাণীনগর থানার ওসি শাহিন আকন্দ বলেন, ঘটনাটি শোনার সাথে সাথে ঘটনাস্থল পরিদর্শন করেছি। তবে ব্যবসায়ীরা যা বলছেন সেটা সঠিক নয়, ৪-৫টি দোকানে এ ঘটনা ঘটেছে। পুলিশ মাঠে কাজ করছে এবং বিষয়টি খতিয়ে দেখা হচ্ছে বলেও জানিয়েছেন তিনি।

শেয়ার করুন

Related Articles

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *