অক্টোবর ২২, ২০২০
৯:১৭ পূর্বাহ্ণ

নলডাঙ্গা উপজেলা চেয়ারম্যান আসাদকে বক্তব্য প্রদানে সতর্কতার নির্দেশ

মোঃ জামিল হায়দার (জনি), নাটোর জেলা প্রতিনিধিঃ
নলডাঙ্গা উপজেলা পরিষদ চেয়ারম্যান আসাদুজ্জামান আসাদকে বক্তব্য প্রদানের ক্ষেত্রে ভবিষ্যতে অধিকতর সর্তকতা অবলম্বের নির্দেশ দিয়ে পত্র প্রেরন করেছে স্থানীয় সরকার,পল্লী উন্নয়ন ও সমবায় মন্ত্রনালয়ের স্থানীয় সরকার বিভাগ। একই সাথে পরিষদের কার্যক্রম পরিচালনার ক্ষেত্রে সর্তকতা ও দায়িত্বপুর্ন আচরন করার জন্য নির্দেশনা সহ পরামর্শ দেয়া হয়েছে।
স্থানীয় সরকার বিভাগের উপ সচিব নুমেরী জামান স্বাক্ষরিত ওই পত্রে এই নির্দেশনা দিয়ে বলা হয়েছে সরকারের জারিকৃত আইন কানুন,বিধি-বিধান ও পরিপত্র এবং স্থানীয় সরকার বিভাগের নির্দেশনা অনুযায়ী উপজেলা পরিষদের কার্যক্রম পরিচালনা ও বক্তব্য প্রদানের ক্ষেত্রে ভভিষ্যতে অধিকতর সতর্ক এবং দায়িত্বপুর্ন আচরন করার জন্য তাকে নির্দেশক্রমে পরামর্শ প্রদান করা হলো।
উল্রেখ্য, করোনা ভাইরাস সংক্রমণ রোধে ধর্ম মন্ত্রণালয়ের জারিকৃত প্রজ্ঞাপনের বিরোধীতা করে ফেসবুকে স্ট্যাটাস দেওয়ার ঘটনায় নলডাঙ্গা উপজেলা পরিষদ চেয়ারম্যান আসাদুজ্জামান আসাদের কাছে ব্যাখা চেয়ে পত্র দেয় স্থানীয় সরকার মন্ত্রণালয়। ২৭ আগষ্ট বৃহস্পতিবার স্থানীয় সরকার মন্ত্রণালয়ের উপজেলা শাখা-১ থেকে উপসচিব নুমেরী জামান স্বাক্ষরিত এক চিঠিতে উপজেলা চেয়ারম্যান আসাদের কাছ থেকে ওই বিষয়ে ব্যাখা চাওয়া হয়েছিল। উপজেলা চেয়ারম্যান আসাদুজ্জামান আসাদ গত ঈদুল ফিতরের আগে তার নিজের ফেসবুক আইডিতে পোষ্টকরা স্ট্যাটাসে উল্লেখ করেন, হাট বাজার ঈদ মার্কেট সব চলছে শুধু ধর্ম পালনে ঈদের জামাত মসজিদে। আমি অবাক হই। আবার অপর এক পোষ্টে উল্লেখ করেন, ফরজ নামাজে ৫ জন, তারাবী হতে ১২ জন, হাট বাজারে হাজার হাজার জন, কি সুন্দর ধর্মমন্ত্রী। এই ধরনের মন্তব্য করেন তিনি। এতে করে করোনা ভাইরাস সংক্রমণ রোধে ধর্ম মন্ত্রণালয়ের জারিকৃত প্রজ্ঞাপনের বিরোধীতা করে এই ফেসবুক স্ট্যাটাস দেন নলডাঙ্গা উপজেলা পরিষদ চেয়ারম্যান আসাদুজ্জামান আসাদ। এর প্রতিবাদে গত ২জুন স্থানীয় আওয়ামীলীগ ও এলাকাবাসী চেয়ারম্যান আসাদের গ্রেফতার ও অপসারণ দাবী করে মানববন্ধন কর্মসূচী পালন করে।
এবিষয়ে উপজেলা পরিষদ চেয়ারম্যান আসাদুজ্জান আসাদের সাথে মোবাইল ফোনে যোগাযোগ করা হলে তিনি পত্র প্রাপ্তির সত্যতা নিশ্চিত করে বলেন, আজ বুধবার স্থানীয় সরকার বিভাগের উপসচিব নুমেরী জামান স্বাক্ষরিত পত্রটি হাতে পেয়েছেন। তিনি দাবী করেন বলেন,তিনি কখনই অসর্তভাবে বক্তব্য প্রদান করেননি। তবে এই পত্রের নির্দেশনা মেনে চলবেন । ভবিষ্যতে দায়িত্বপুর্ন আচরন ও বক্তব্য প্রদানের ক্ষেত্রে চিঠির নির্দেশনা ও পরামর্শ মেনে চলার প্রতিশ্রুতি ব্যক্ত করেন।

শেয়ার করুন

Related Articles

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *