নভেম্বর ৩, ২০২০
৯:৩৫ পূর্বাহ্ণ

পাপিয়ার চেয়ে ভয়ঙ্কর তমা

খবর ডেক্সঃ- বরিশালের নাম করা নেতাদের ছত্র ছায়ায় তমা শিকদার ওরফে তানিয়া আক্তার তমা নামের এই ভয়ংকর নারী গা ঘোষিয়ে বেড়াচ্ছে। বর্তমানে পুরান ঢাকার সকল থানায় ইয়াবার চালান, প্রতারণা, অপহরণ, ব্লাকমেইলিংসহ তার বিরুদ্ধে শতাধিক মামলা থাকা সত্ত্বেও আইনের লোকজন নীরব ভুমিকা পালন করছেন। শিগগিরই এই ভয়ঙ্কর নারী সকল অপকর্ম মানুষের সামনে প্রকাশ পাবে।

তানিয়া আক্তার তমা ওরফে তমা শিকদার (শিকদার পদবী প্রথম স্বামী এর থেকে নিয়েছিলেন) এর পরে ৫০ জন স্বামীর ও অধিক স্বামীর সাথে বিয়ে ও ব্লাক্মেইলিং ও প্রতারনা করে বেঁচে আছেন। থানা হাত পুলিশ হেড কোয়ার্টার হাত করেছিলেন প্রাক্তন আইজিপি এর ছত্র ছায়ায়।এই পাপিপা রুপি সমাজের কীটদের বাঁচিয়ে রেখেছেন নিজের অস্তিত্ব আর ক্ষমতা টিকিয়ে রাখার রাজনৈতিক কৌশলী এর অস্র প্রয়োগ এর ধারাবাহিকতায়। পাপিয়া রুপী অষ্টম শ্রেণী পড়ুয়া এই নারী নিজেকে ডাক্তার আবার কখনও সাংবাদিক আবার কখনও আওয়ামীলীগের নেত্রী পরিচয় দিয়ে সকল ধরনের অপরাধ চালিয়ে যাচ্ছে।

তানিয়া আক্তার তমা ওরফে তমা শিকদার এর এই ব্যবসা এর হাতে খড়ী পান তার মাতার কাছে থেকে তার মাতা পুরান ঢাকার কুট্টি এর মেয়ে থাকার কারনে সুবিধা পেয়েছেন ঢাকায় অপরাধ জগতের এক অভয় অরণ্য গড়ে তোলার। তমার বাবাকেও এইরকম ব্লাক্মেইলিং করে ২য় বিবাহ করেছিলেন জানতে পারলাম। তমা হচ্ছেন ২য় মাতার সন্তান। প্রথম মাতাকে জায়গা জমি সম্পত্তি থেকে স্বামীর অধিকার থেকে বহিষ্কার করেছিলেন তমার মাতা।

পুরান ঢাকার শ্যামপুর থানা , যাত্রাবাড়ী থানা , বাসাবো থানা , মগবাজার ও মালিমাগ থানা , রমনা থানা তে তার নামে শতাধিক খুন , প্রতারণা , হাইজ্যাক ও মাদক মামলা রয়েছে তমার বিরুদ্ধে।

তমা বরিশালের কাউনিয়া থানার সাহাপারা ভাটিখানা গ্রামের মৃত ডাক্তার আজাহার উদ্দিনের মেয়ে। কাউনিয়া থানাতেও শতাধিক মামলা রয়েছে এ পাপিয়ার (তমার ওরফে তমা শিকদার) নামে। তমার আপন ছোট ভাই রনি বরিশালের এক নেতার ডান হাত সে আওয়ামীলীগের কর্মী পরিচয়ে চুরি হাইজ্যাক খুন জমি দখল, টেন্ডার বাজির প্রথম স্থানে আছে। কারন এই পাপিয়ারা ও রনিরা জানে তাদের কিছু হবে না। এই নারী অপরাধীরা সাহস পেলো কোথায় ? কার হুকুমে ? বঙ্গ বন্ধুর নাম ও দল বিক্রি করার দুঃসাহস দিছে কে ? আজ বাংলাদেশের মানুষ ও বাঙালী জাতির কাছে এই প্রশ্ন…।
সংবাদটি সাংবাদিক সুলতানা ‘র ফেসবুক আইডি থেকে সংগ্রহ করা হয়েছে।

শেয়ার করুন

Related Articles

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *