ডিসেম্বর ২৪, ২০২০
৯:০৮ অপরাহ্ণ
বঙ্গবন্ধু মহাসড়কে বিপদজনক ব্লক

বঙ্গবন্ধু মহাসড়কে বিপদজনক ব্লক

প্রায়ই ঘটছে দুর্ঘটনা

আজকের খবরঃ সিলেট-ভোলাগঞ্জ বঙ্গবন্ধু মহাসড়কের আরসিসি ঢালাইয়ের কাজ শেষ। শুধুমাত্র হাইটেক পার্কের সামনে দেবে যাওয়া রাস্তার এক সাইডের ৭০ ফুট ঢালাইয়ের বাকি রয়েছে। যাতে লিখা রয়েছে পরীক্ষামূলক অংশ। রাস্তার কাজ শেষ হওয়ায় এই সড়কে বেড়েছে গাড়ি চলাচলের সংখ্যা। সাম্প্রতিক সময়ে ভোলাগঞ্জ সাদা পাথর পর্যটন কেন্দ্র ভ্রমণ পিপাসুদের কাছে পছন্দের শীর্ষে থাকায় এই সড়কে বৃদ্ধি পেয়েছে মোটরসাইকেল ও প্রাইভেট কারের সংখ্যা। রাস্তার কাজ শেষ হলেও এখনো শেষ হয়নি ব্লক লাগানোর কাজ। রাস্তার সাইটে লাগানোর জন্য এসব ব্লক তৈরি করা হয় মহাসড়কের উপরে রেখে। রাস্তার অর্ধেক অংশ জুড়ে তৈরি করা হয় ব্লক। আবার কোথাও কোথাও রাস্তার মধ্যখানে ছড়িয়ে-ছিটিয়ে থাকতে দেখা যায় এসব ব্লক। রাস্তার উপরে রেখে ব্লক তৈরি করার কারণে এই সড়কে বেড়েছে দূর্ঘটনা। শীত মৌসুম হওয়াতে সন্ধ্যার পরপরই কুয়াশা নামে এসব সড়কে। কুয়াশার কারণে স্পষ্ট দেখতে না পেয়ে রাস্তার উপরে রাখা ব্লকের সাথে ধাক্কা খেয়ে অনেককেই যেতে হয়েছে হাসপাতালে। এ মাসের প্রথম দিকে কোম্পানীগঞ্জ ফটোগ্রাফী সোসাইটির সদস্য রায়হান, জিহাদ ও মাইনুল সিলেট থেকে মোটরসাইকেলে করে কোম্পানীগঞ্জ আসার পথে তেলিখাল নামক স্থানে রাস্তার উপরে রাখা ব্লকের সাথে ধাক্কা খেয়ে মারাত্মক আহত হন। রাস্তার উপরে ব্লক থাকলেও নেই কোন সতর্কীকরণ সাইনবোর্ড। বঙ্গবন্ধু মহাসড়কে যাতায়াতকারীদের দাবি এসব ব্লক রাস্তার উপর তৈরি না করে নিরাপদ কোন যায়গায় যেন তৈরি করা হয়।

রাস্তার ঠিকাদারি প্রতিষ্ঠান স্পেক্ট্রা ইন্জিনিয়ারিং এর রোডস এন্ড হাইওয়ে ইন্জিনিয়ার তৌহিদ জামিল আজকের খবর এর সাথে এ বিষয়ে কথা হলে তিনি জানান, রাস্তার নিচে পানি থাকার কারণে নিচে ব্লক তৈরি করা সম্ভব হচ্ছে না এজন্য দু’পাশের ৫ ফিট জুড়ে তৈরি করা হচ্ছে এসব ব্লক। অর্ধেক রাস্তা জুড়ে ব্লক তৈরি করা হচ্ছে কেন এমন প্রশ্নের জবাবে তিনি বলেন, অর্ধেক রাস্তা জুড়ে ব্লক তৈরি করা হচ্ছে না তবে এমনটি হলে আমরা সরানোর ব্যবস্থা করব।

এ বিষয়ে কোম্পানীগঞ্জ উপজেলা নির্বাহী অফিসার সুমন আচার্যের সাথে কথা হলে তিনি তাৎক্ষণিক সিলেটের রোর্ডস এন্ড হাইওয়ে প্রকৌশলীর সাথে টেলিফোনে কথা বলে বিষয়টি দেখার জন্য বলেন।

শেয়ার করুন

Related Articles

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *