নওগাঁ জেলা প্রতিনিধি
মার্চ ১৬, ২০২২
৩:১৩ অপরাহ্ণ
রাণীনগরে ইউনিয়ন বিএনপির আহবায়ক কমিটি থেকে ২১ সদস্যের পদত্যাগ

রাণীনগরে ইউনিয়ন বিএনপির আহবায়ক কমিটি থেকে ২১ সদস্যের পদত্যাগ

নওগাঁর রাণীনগর উপজেলার বড়গাছা ইউনিয়ন বিএনপির আগের আহবায়ক কমিটি বিদ্যমান রেখে নতুন করে আহবায়ক কমিটি ঘোষণা করায় নেতাকর্মীদের মাঝে অন্তদ্বন্দের সৃষ্টি হয়েছে। এতে করে চরম ক্ষোভ প্রকাশ করেছেন বড়গাছা ইউনিয়ন বিএনপির তৃণমুলের নেতাকর্মীরা। যে কোন মুহুর্তে সংঘাতের আশঙ্কা দেখা দিয়েছে। সম্প্রতি বড়গাছা ইউনিয়ন বিএনপির নবগঠিত আহবায়ক কমিটির ২৮ জন সদস্যের মধ্যে থেকে ২১ জন সদস্য পদত্যাগ করেছেন।

অভিযোগ উঠেছে, আগের কমিটি বিলপ্ত না করেই উপজেলা বিএনপির কতিপয় নেতৃবৃন্দ তাদের নিজের পছন্দের লোকজন দিয়ে নতুন আহবায়ক কমিটির অনুমোদন দেওয়ায় দলবেধে ২১ জন সদস্য পদত্যাগ করেন। দ্রুত এ বিষয়ে উদ্ধর্তন নেতাদের হস্তক্ষেপ কামনা করেছেন বড়গাছা ইউনিয়ন বিএনপির তৃণমুলের নেতাকর্মীরা।

লিখিত অভিযোগে জানা গেছে, গত ২০১৯ সালের ৩০ অক্টোবর বড়গাছা ইউনিয়ন বিএনপির একটি আহবায়ক কমিটি অনুমোদন দেয়া হয়। উপজেলা বিএনপির নেতৃবৃন্দের মতবিরোধের কারণে উক্ত আহবায়ক কমিটি কার্যক্রম পরিচালনা করতে পারে নাই। হঠাৎ করে চলতি মাসের ৫ তারিখে পূর্বের আহ্বায়ক কমিটি বহাল রেখে আবার নতুন করে বড়গাছা ইউনিয়ন বিএনপির আরো একটি আহবায়ক কমিটি অনুমোদন দেয়া হয়েছে।

আরও জানা গেছে, গত কয়েক মাস আগে উপজেলা বিএনপির শীর্ষ নেতৃবৃন্দ বড়গাছা ইউনিয়নের চৌমুহনী বাজারে একটি কর্মী সমাবেশ করেন। সমাবেশে সর্বসম্মত সিদ্ভান্ত হয় যে, ইউনিয়ন বিএনপির নেতৃবন্দের মতামতের ভিত্তিতে বড়গাছা ইউনিয়ন বিএনপির নতুন কমিটি গঠন করা হবে। কিন্তু বড়গাছা ইউনিয়ন বিএনপির মেতাকর্মীর সঙ্গে আলাপ আলোচনা না করেই উপজেলা বিএনপির কতিপয় নেতৃবৃন্দ নিজেদের পছন্দের লোক দিয়ে ২৮ সদস্যের একটি নতুন আহবায়ক কমিটি গঠন করেন।

অভিযোগে জানা যায়, পূর্বের ইউনিয়ন বিএনপির আহবায়ক কমিটি বিদ্যমান রেখে নতুন করে আরো একটি আহবায়ক কমিটি গঠিত হতে পারে না। এটা গঠনতন্ত্রবিরোধী। তাই গঠনতন্ত্রবিরোধী কর্মকান্ড ও দলকে ধ্বংসের দিকে ঠেলে দেওয়ার চেষ্টা করার প্রতিবাদে চলতি মাসের ১০ তারিখে বড়গাছা ইউনিয়ন বিএনপির নবগঠিত আহবায়ক কমিটির ২৮ জন সদস্যের মধ্যে থেকে ২১ জন সদস্য পদত্যাগ করেছেন। তাদের দাবি, নবগঠিত নতুন আহবায়ক কমিটি বিলুপ্ত করে বড়গাছা ইউনিয়ন বিএনপির তৃণমূলের নেতাকর্মীদের মতামতের ভিতিতে একটি সুন্দর কমিটি উপহার দেওয়ার।

২০১৯ সালে গঠিত কমিটির বড়গাছা ইউনিয়ন বিএনপির আহবায়ক মহরম আলী জানান, আমাদের আগের কমিটি বহাল রেখেই আবার নতুন একটি আহবায়ক কমিটি অনুমোদন দেওয়া হয়েছে। এটা কি করে সম্ভব। তিনি বলেন, ইউনিয়নের নেতাকর্মীদের সাথে কোন আলাপ আলোচনা না করেই গোপনে উপজেলা বিএনপির ককেজন নেতা নতুন কমিটি গঠন করেছে। এনিয়ে তৃণমূলের নেতাকর্মীদের মাঝে অন্তদন্তের সৃষ্টি হয়েছে।

বড়গাছা ইউনিয়ন বিএনপির নবগঠিত আহবায়ক কমিটি থেকে পদত্যাদকারী রেজাবুল হক চরম ক্ষোভ প্রকাশ করে বলেন, উপজেলা বিএনপির কিছু নেতা গোপনে বড়গাছা ইউনিয়ন বিএনপির নতুন আহবায়ক কমিটি গঠন করেছে। তাই আমিসহ নতুন আহবায়ক কমিটি থেকে ২১ জন সদস্য স্বেচ্ছায় পদত্যাগ করেছি। তিনি বলেন, নুতন আহবায়ক কমিটির হওয়ার পর থেকে ইউনিয়ন বিএনপির তৃণমুল নেতাকর্মীদের মাঝে অন্তদন্দের সৃষ্টি হয়েছে। যে কোন মুহুর্তে সংঘাত সৃষ্টি হতে পারে। তিনি দাবি করে বলেন, নতুন আহবায়ক কমিটি বিলুপ্ত করে ইউনিয়ন বিএনপির তৃণমূলের নেতাকর্মীদের মতামতের ভিতিতে একটি সুন্দর কমিটি উপহার হোক।

এ ব্যাপারে রাণীনগর উপজেলা বিএনপির যুগ্ন আহবায়ক আতিকুজ্জামান জাপান (ভিপি) বলেন, লিখিত পদত্যাগ পত্রের কপি তারা আমার বাসায় রেখে গিয়েছিলেন। সেই কপি আমি হাতে পেয়েছি। ইতি মধ্যেই পদত্যাগ করা ২১ জনের মধ্যে ১০ জন তাদের সদস্য পদ বহাল রাখার জন্য আবেদন করেছেন। তাদের দাবি, বড়গাছা ইউনিয়ন বিএনপির নতুন আহবায়ক কমিটির সদস্যদের ভুল বুঝিয়ে কতিপয় কয়েকজন লিখিত পত্রে স্বাক্ষর নিয়েছে। বিষয়টি ক্ষতিয়ে দেখা হচ্ছে বলেও জানিয়েছেন তিনি।

শেয়ার করুন

Related Articles

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *